কোষ্ঠকাঠিন্য (Constipation) রোগের কারণ, লক্ষন ও চিকিৎসা

 কোষ্ঠকাঠিন্য (Constipation) রোগের কারণ, লক্ষন ও চিকিৎসা
কোষ্ঠকাঠিন্য ( Constipation ) :

কোষ্ঠকাঠিন্য কারণ : চা , কফি বা উগ্র মাদক দ্রব্য সেবন , ঠাণ্ডা লাগান , গুরুপাক দ্রব্য ভােজন , পরিশ্রম একেবারে না করা , হঠাৎ শােক , দুঃখ বা ভয় পাওয়া , রাতজাগা বা ঘুম না হওয়া , চর্মরােগ হঠাৎ কমে যাওয়া , আঘাত প্রাপ্তি , বিভিন্ন ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া জনিত কারণেইনটেসটিনাল ফ্লোরা ব্যাঘাত প্রাপ্ত হয়ে কোষ্ঠকাঠিন্য সৃষ্টি হয় । এছাড়া পেটের রােগ , লিভারের কাজের গােলমাল , ক্রনিক আমাশয় জনিত কারণে কোষ্ঠকাঠিন্যের সৃষ্টি হয় ।

রােগ লক্ষণ :

পায়খানা পরিষ্কার হয় না , কখনাে খুব শক্ত এবং সামান্য পায়খান । হয় । মল শক্ত বা শুকনাে অথবা পােড়া পােড়া পায়খানা হয় ।

জ্বিহা লেপাবৃত হয় , মেজাজ খিটখিটে হয় , ক্ষিনে হয় না , পেটে বায়ু জমে এবং ফেঁপে ওঠে । মাথাধরা , অস্বাচ্ছল্য ভাব প্রভৃতিও এই সঙ্গে দেখা যায় ।

কখনাে কোথ বেশি হয় , মাথা গরম হয় ও মল গুটলির মতাে হয় । কখনাে বা বার বার মলত্যাগের ইচ্ছা জাগে , কিন্তু সামান্য মল কখনও হয় বা হয় না ।

অনেক সময় এর জন্য ব্লাড প্রেসার বেড়ে যায় ও মাথা ঘােরা , মাথা ভোঁ – ভো করা প্রভৃতি দেখা যায় । এমন রােগীও দেখা যায় যাদের সপ্তাহে ১ দিন পায়খানা হয় তাও পরিষ্কার নয় ।

চিকিৎসা :

১। যকৃতের গােলমাল থেকে কোষ্ঠবদ্ধতা সৃষ্টি হলে দিতে হবে 

Bioline Liquid ( বায়ােলিন লিকুইড ) ৪ চামচ সকালে খালিপেটে ১ গ্লাস জলসহ ।

  • অথবা Sorbiline Syrup ( সরবিলিন সিরাপ ) ৪ চামচ করে সকালে খালিপেটে ১ গ্লাস জলসহ ।
  • অথবা .Mecoline Syrup ( মেকোলিন সিরাপ ) ৪ চামচ করে সকালে খালিপেটে ১ গ্লাস জলসহ ।

২। অন্যান্য কারণে মারাত্মক কোষ্ঠ হলে দিতে হবে —

Cremafin – FS ( ক্রিমাফিন – এফ – এস ) ২ চামচ ১ কাপ ১ কাপ জলে গুলে খাবার পূর্বে দিনে ২ বার ।

  • অথবা Naturocare ( ন্যাচারােকেয়ার ) ২ চামচ ১ কাপ জলে গুলে সকাল ও সন্ধ্যায় ।
  • অথবা Evacuol Granules ( ঈভাকিউল গ্রানিউ ) ১-২ চামচ রাত্রে শােবার সময় ১ কাপ জলে গুলে ।
  • *অথবা Duphlac Syrup ( ভফাল্যাক সিরাপ ) ৩০ মিলি প্রত্যহ সকালে খালিপেটে ।
  • অথবা Tab Pursennid in ( ট্যাব পারসিনিড – ইন ) ২-৩টি ট্যাবলেট রাত্রে শােবার সময় গরম জলসহ ।
  • অথবা Tab Dulcolax ( ট্যাব ডালকোল্যাক্স ) ২ টি রাত্রে শােবার সময় গরম জলসহ ।
  • *অথবা Tab Julax ( ট্যাব জুল্যাক্স ) ২ টি রাত্রে শশাবার সময় গরম জলসহ ।

উপরিউক্ত চিকিৎসায় কোষ্ঠকাঠিন্য দূর নাহলে X – ray করে দেখতে হবে অন্ত্রের অবরােধ বা অন্য কোন বাধা সৃষ্টি হয়েছে কিনা ।

একটানা কয়েকদিন পায়খানা না হলে ভুস বা এনিমা দেওয়ার প্রয়ােজন হয় ; Practoclys ( প্যাকট্রোক্লিস ) এনিমা ব্যবহার করা যায় । তাছাড়া ভুস দেওয়ার জন্য Glycerine ব্যবহার করা যায় ।

অনেকসময় Dulcolax ( ভালকোল্যাক্স ) অথবা Glycerine ( গ্লিসারিন ) Sup pository মলদ্বারে প্রবেশ করালে পায়খানা হয়ে যায় ।

আনুষঙ্গিক ব্যবস্থা :

১। সারাদিনে কমপক্ষে দশ গ্লাস জল খাওয়া উচিত ।

২। স্নানের সময় পুকুরে সাঁতার কাটা বা সর্বাঙ্গাসন , মৎস্যাসন জাতীয় ব্যায়াম রা ভাল । প্রত্যহ প্রাতে ও সন্ধ্যায় ভ্রমণ করা ভাল।

ত | প্রত্যহ সকালে মলত্যাগের ব্যবস্থা করতে হবে ।

৪। গমের ভূষি দুধে ভিজিয়ে , রুটি , মাখন , মধু , লেবু , আঙুর , সবুজ শাকসবজি , ছােলা – মটর ভিজা , টম্যাটো , শশা , কলা প্রভৃতি নিয়মিত খাওয়া ভাল ।

৫ | অলসজীবনযাপন , গুরুপাক খাদ্য খাওয়া , নেশাকরা , সামান্য কারণেই ঔষধ সেবন প্রভৃতি ক্ষতিকারক ।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Change Language