খোস পাঁচড়া ( Scabies ) কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার

খোস পাঁচড়া ( Scabies ) কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার
খোস পাঁচড়া

খোস পাঁচড়া ( Scabies ) :

Sarcoptes Scabii ( সারকপটেজ স্কেবাই ) নামক পরজীবী ( Para site ) খোস পাঁচড়া রােগের কারণ । এরা চামড়া দিয়ে ঢেকে , চামড়ার নিচে বাসা বাঁধে । শিশুদের এই রােগ বেশি হয় । অপরিচ্ছন্নতা এই রােগের অন্যতম কারণ । এই রােগ ভয়ানক ছোঁয়াচে । বয়স্কদেরও এই রােগ হয় তবে কম ।

রােগ লক্ষণ :

১। হাত ও পায়ের আঙ্গুলের ফাঁকে , উরু , কজি , কনুই , বগল , পেট , অণ্ডকোষ প্রভৃতি অংশ ভয়ানকভাবে চুলকাতে থাকে ।

২। ঐ সকল স্থানে ইতস্ততঃ বিক্ষিপ্ত চুলকানি বের হয় ।

৩। কিছুদিনের মধ্যেই ঐ চুলকানিগুলি পাকতে শুরু করে , পুঁজ হয় ।

৪। কখনাে বা ফোস্কার ন্যায় পুঁজ ভর্তি উদ্ভেদ বের হয় ।

৫। পাকলে বা পুঁজ জমলে ব্যথা যন্ত্রণা এবং আড়ষ্টভাব সৃষ্টি হয় ।

৬। পরে বড় বড় ক্ষতের সৃষ্টি হয় এবং ঐ পুঁজ সুস্থ চামড়ায় লাগালে পুনরায় সেস্থলে উদ্ভেদ বের হতে থাকে।

৭।মুখমণ্ডল এবং মস্তকে এই রােগ হয়না ।৮ । উদ্ভেদ থেকে পুঁজ নিয়ে । পরীক্ষা করলে জীবাণুর উপস্থিতি জানা যায় ।

চিকিৎসা :

১।প্রথম অবস্থায় নিচের যে কোন একটি লােশন লাগালে রােগ সেরে , যাবে- Scarab Lotion ( স্ক্যারাব লােশন ) দিনে ১ বার পরপর ৩ দিন লাগাতে হয় । ১ সপ্তাহ পর পুনরায় ৩ দিন ।

  • অথবা Scabanca – C Lotion ( স্ক্যাবাঙ্কা – সি লােশন ) দিনে ১ বার পরপর ৩ দিন লাগাতে হয় । এক সপ্তাহ পর পুনরায় ৩ দিন ।
  • অথবা Gamaderm Lotion ( গামাডার্ম লােশন ) দিনে ১ বার পর পর ৩ দিন । ১ সপ্তাহ বাদ পুনরায় ৩ দিন লাগাতে হবে।
  • *অথবা Emscab Lotion ( এমস্ক্যাব লােশন ) দিনে ১ বার ৩ দিন লাগাতে হবে । ৭ দিন বাদ পুনরায় ৩ দিন ।
  • অথবা Scaboma Lotion ( স্ক্যাবােমা লােশন ) দিনে ১ বার ৩ দিন লাগাতে হবে । ৭ দিন পর পুনরায় ৩ দিন লাগাতে হবে।
ব্যবহারের নিয়ম :

গরম জলদ্বারা ভালভাবে স্নান করে গা মুছে শুকিয়ে নিতে হবে । তারপর লােশনটি তেলমাখার ন্যায় গলা থেকে পা পর্যন্ত মাখতে হবে । পরের একই ভাবে স্নানের পর ব্যবহার করতে হবে ।

২।বীজাণুদূষণ হয়ে ক্ষত বেড়ে গেলে নিচের যে কোন ১ টি বীজাণুনাশক ঔষধ দিতে হবে – ‘ Tab Sepmax ( ট্যাব সেপম্যাক্স ) ১ টি করে দিনে ২ বার ৫ দিন ।

  • অথবা Cap Ampoxin – 500 mg ( ক্যাপ অ্যাম্পক্সিন -৫০০ মিগ্রা ) ১ টি করে দিনে ৩ বার ৫ দিন ।
  • অথবা TabErythrocin – 250mg ( ট্যাব এরিথ্রোসিন -২৫০ মিগ্রা ) ১ টি করে দিনে ৩-৪ বার ৫ দিন ।
  • *অথবা Cap Azithral – 250 mg ( ক্যাপ । আজিব্রাল -২৫০ মিগ্রা ) ২ টি করে দিনে ১ বার ৩ দিন ।
শিশুদের জন্য –

Bactrim Suspension ( ব্যাকট্রিম সাসপেন ) ১ চামচ করে দিনে ২ বার ৫ দিন ।

  • অথবা Novamax Syrup বা Kidtab ( নােভামক্স সিরাপ বা কিডট্যাব ) ১ চামচ সিরাপবা ১ টি কিডট্যাব দিনে ৩-৪ বার ৫ দিন ।
  • অথবা Erythrocin Syrup ( এরিথ্রোসিন সিরাপ ) ১ চামচকরেদিনেবার ৫ দিন ।
  • *অথবা TabAlthrodin Kid ( ট্যাব অ্যালথ্রোসিন কিড ) ১ টি করে দিনে ৩ বার ৫ দিন ।

৩। প্রচণ্ড চুলকানি হতে থাকলে অ্যান্টি হিস্টামাইন জাতীয় ঔষধ দিতে হবে Tab Alerozole – 10 mg ( ট্যাব অ্যালারজোল -১০ মিগ্রা ) রাত্রে খাবার আধঘণ্টা আগে ১ টি করে প্রত্যহ ৭ দিন ।

  • অথবা Tab Hiterf – 60 mg ( ট্যাব হাইটাফ -৬০ মিগ্রা ) ১ টি করে দিনে ২ বার ৫ দিন ।
শিশুদের ক্ষেত্রে –

Phenergan Syrup ( ফেনারগান সিরাপ ) : -১ চামচ দিনে ২-৩ বার ৫ দিন ।

  • অথবা Cetzine Syrup ( সেটজাইন সিরাপ ) ২১ চামচ দিনে ১-২বার ৫ দিন ।
  • অথবা Atarax Syrup ( অ্যাটার্যাক্স সিরাপ ) দিনে ১ বার রাত্রিতে শােবার সময় ৫-৭ দিন ।
আনুষঙ্গিক ব্যবস্থা :

১। এক সাথে বসবাসকারী সকলের চিকিৎসা একসাথে করতে হবে খোস পাঁচড়া-র।

২।প্রত্যহ পােশাক – পরিচ্ছদ , গামছা – তােয়ালে , বিছানাপত্র গরম জলে সাবান দ্বারা কাচতে হবে ; না হলে পুনরায় রােগ আক্রমণের সম্ভাবনা থাকে ।

৩। অত্যধিক ক্ষার জাতীয় সাবান ব্যবহার নিষিদ্ধ ।

৪। রােগ সম্পূর্ণ রূপে সেরে গেলে চালুমুগরার তেল কিছুদিন মাখা ভাল ।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Change Language